বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:০৪ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
তামিমের বরিশালের কাছে স্বপ্নভঙ্গ সাকিবের রংপুরের বান্ধবীর বিয়ে হওয়ায় ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে অপর বান্ধবীর আত্মহত্যা! প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রমজানে বড় ইফতার পার্টি করা যাবে না কারো মিথ্যা প্রতিশ্রুতিতে বিভ্রান্ত হবেন না-ভোটারদের উদ্দেশ্যে মসিক মেয়র প্রার্থী ইকরামুল হক টিটু বগুড়ার শেরপুরে গুদামে তালা ভেঙে চাল লুট ভাসানচরে বিস্ফোরণঃ আরও এক শিশুর মৃত্যু, মৃতের সংখ্যা বেড়ে-৪ ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের কোনো শিক্ষক কোচিং করাতে পারবেন না কত টাকার সম্পত্তি রেখে গেলেন পঙ্কজ উদাস! ভারতের প্রথম মহাকাশযাত্রায় কারা যাচ্ছেন, জানালেন মোদি আলজেরিয়ায় বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম মসজিদ উদ্বোধন
ঘোষণাঃ
বহুল প্রচারিত বঙ্গবাজার পত্রিকায় আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে আজই যোগাযোগ করুন,এছাড়াও আপনার আশেপাশে ঘটে যাওয়া কোন ঘটনা, দুর্ঘটনা, দুর্নীতি, ভালো খবর, জন্মদিনের শুভেচ্ছা, নির্বাচনি প্রচারণা, হারানো সংবাদ, প্রাপ্তি সংবাদ, সংর্বধনা, আপনার সন্তানের লেখা কবিতা, ছড়া,গান প্রকাশ করতে যোগাযোগ করুন। ❤️দেশ সেরা পত্রিকা হতে পারে আপনার সহযাত্রী ❤️

অসাম্প্রদায়িক চেতনার মানুষ লেখক -শিল্পী সাফায়াত খানের স্বপ্ন ছিল দুর্নীতিমুক্ত সুন্দর এক স্বদেশ -দেবব্রত সেন

  • বঙ্গ নিউজ ডেস্কঃ প্রকাশিত শনিবার, ১৪ মে, ২০২২
  • ৭৩ বার পড়া হয়েছে

দীর্ঘদিন স্পন্ডালাইটিসসহ নানা রোগে এবং শোকে ভুগতে ভুগতে শেষ পর্যন্ত মৃত্যুর কাছে হেরে গেলেন প্রচন্ড সাহসী, প্রাণবন্ত, আড্ডাবাজ, বন্ধুবৎসল এ মানুষটি। একটা লিটল ম্যাগাজিন প্রিন্টিংয়ের সূত্র ধরে ১৯৯৭ সালে তাঁর সাথে আমার দেখা হয় এবং তখন থেকেই তাঁকে কুঁজো হয়ে হাঁটতে দেখেছি, স্বাভাবিকভাবে তিনি দাঁড়াতে পারতেন না। আমার বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার প্রায় পুরো সময়টাই উত্তর    নালাপাড়ায় তাঁর প্রতিবেশী হওয়ার সুবাদে এবং আমার স্বজনরা তাঁর পরিচিত হওয়ার কারণে আমি তাঁর বিশেষ স্নেহভাজন হয়ে উঠেছিলাম খুব অল্প সময়ে। আমার বন্ধুরাসহ তাঁর সাফা’স স্টুডিওতে বসে কত চা খেয়েছি তার কোনও হিসেব নেই, একটাকা বিল কখনও দিতে দেননি। লিটল ম্যাগাজিনের জন্যে তাঁর মধ্যে একটা ভালোবাসা সবসময়ই প্রত্যক্ষ করেছি।  মাঝেমাঝেই ব্যাথাটা অনেক বেড়ে যেতো, তখন অন্যের সাহায্য ছাড়া চলতেই পারতেন না। এমনও হয়েছে অনেক দিন তাঁকে টেক্সিতে করে তাঁর প্রিয় কাজের জায়গা সাফা’স স্টুডিওতে নিয়ে যেতে হয়েছে আমাকে। তখন দেখেছি তাঁকে তাঁর সহধর্মিণী কী অসীম যত্নে আগলে রেখেছিলেন। নিজের স্কুল, সংসার -সন্তান সামলিয়ে সীমাহীন ধৈর্য্যের সাথে দিনের পর দিন স্বামীর সেবাশুশ্রূষা করেই কাটিয়ে দিয়েছেন তাঁর সুন্দরতম সময়।

দীর্ঘরোগ, শোক-ব্যাথা তাঁর প্রাণশক্তিকে দমাতে পারেনি এতটুকু। তিনি শিল্প সংস্কৃতি এবং সৃজনশীল কাজের সাথে নিয়মিত যুক্ত ছিলেন। তাঁকে কখনও আক্ষেপ করতে দেখিনি। অন্যের সুখে তিনি আনন্দ পেতেন এবং অন্যের দুঃখ তাঁকেও কষ্ট দিত।

ঠাট্টা-তামাশা করেই তিনি জীবনটাকে উপভোগ করতে চাইতেন। এইতো ঈদের দিন তিনি স্ট্যাটাস দিলেন,” বিদায় চানা পেঁয়াজু। ”

সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে তিনি ছিলেন সবসময় সোচ্চার। তাঁর সাহসী উচ্চারণ আমাকে মুগ্ধ করতো সবসময়ই। অন্যায়কে কখনও প্রশ্রয় দিতে দেখিনি তাঁকে, রেগে গেলে মুখে যা আসে তাই বলতেন। তাঁর মুখের সেই গালি তখন খারাপ লাগতোনা। দুর্নীতি আর শোষণমুক্ত স্বদেশ দেখতে চেয়েছিলেন সব সময়।

দীর্ঘদিন আমার বিদেশে থাকার কারণে যোগাযোগ ছিলোনা। পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আবার যোগাযোগ তৈরি হলে খুব আনন্দিত হয়েছিলেন এবং আমি যখন আবার দেশে ফিরে এসে দেখা করতে যাই খুব উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছিলেন এই জন্যেই যে মা এবং মাটির টানে বিদেশের নানা প্রলোভন তাঁকেও আটকাতে পারেনি। অর্থের প্রতি প্রলুব্ধ হতে তাঁকে দেখিনি কখনওই। ভাইদেরকে তিনি ভালোবাসতেন প্রচন্ড। সম্প্রতি বিমানের বড়পদে কর্মরত ছোটভাইয়ের মৃত্যুতে তিনি প্রচন্ড মুষড়ে পড়েছিলেন।

সাফায়াত খান শুধু শিল্পীই ছিলেন না, সাহিত্য সংস্কৃতির প্রতিটি ক্ষেত্রে ছিল তাঁর অবাধ বিচরণ। তিনি নিজের ঢাক নিজে পেটাতে শেখননি কখনও আর শেখেননি বলেই হয়তো জীবদ্দশায় তাঁর যথাযথ মূল্যায়ন আমরা করতে পারিনি। এ ব্যর্থতার দায় আমার, আমাদের। প্রার্থনা করি, তিনি ভালো থাকুন অনন্তলোকে।

এই ধরনের আরও খবর

Advertising

আর্কাইভ

আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন এখানে

জেলা প্রতিনিধি হতে যোগাযোগ করুন

সপ্তাহের সেরা ছবি

© All rights reserved © 2022 bongobazarpatrika.com
Theme Download From ThemesBazar.Com